Monday, April 15, 2024
spot_img
Homeবিজ্ঞান ও প্রযুক্তিঅফিসেই ঘুমান টুইটার কর্মীরা

অফিসেই ঘুমান টুইটার কর্মীরা

মাইক্রো ব্লগিং প্ল্যাটফরম টুইটারের মালিকানা ইলন মাস্কের হাতে যাওয়ার পর কর্মীদের ওপর স্ট্রিম রোলার চলছে! ছাঁটাই হয়েছে ১০ হাজারেরও বেশি কর্মী। এখনো চাকরি হারানোর আতঙ্কে আছেন কর্মীরা। চাকরি টিকিয়ে রাখতে লড়াই করতে হচ্ছে। কেননা, মালিক ইলন মাস্ক সাফ জানিয়েছেন, কঠোর পরিশ্রম করতে না পারলে চাকরি ছাড়ুন। টুইটারের সিইও হিসাবে ইলন মাস্ক যোগ দেওয়ার পরপরই এক ধাক্কায় টুইটারের ৫০ শতাংশ কর্মীকে তাড়িয়ে দেওয়া হয়। এরপরও ধাপে ধাপে জারি রয়েছে কর্মী ছাঁটাই। যারা এখনো চাকরি করছেন টুইটারে, তারাও ভয়ে রয়েছেন এই বুঝি চাকরি গেল। কাজ টিকিয়ে রাখতে তারা দিনে ১২ থেকে ১৮ ঘণ্টা কাজ করছেন। বাড়ি যাওয়ার সময়ও নেই তাদের, অফিসের মেঝেতেই ঘুমোচ্ছেন তারা। এবার টুইটার কর্মীদের সুবিধার জন্য অফিসকেই বেডরুম বানিয়ে দিলেন ইলন মাস্ক। সান ফ্রান্সিসকোয় টুইটারের হেডকোয়ার্টারেই বেডরুম তৈরি করে দিয়েছেন মাস্ক। সেখানে খাট থেকে শুরু করে সোফা, ওয়াশিং মেশিন যাবতীয় কিছুরই ব্যবস্থা করে দিয়েছেন তিনি। টুইটারে ভাইরাল হওয়া একাধিক ছবিতে দেখা গেছে, টুইটার সংস্থায় বিভিন্ন রুম, যা আগে অফিস হিসাবে ব্যবহার করা হতো, তা বেডরুমে পরিবর্তিত করা হয়েছে। শুধু খাট নয়, টুইটারের কর্মীরা সোফাতেও বালিশ-চাদর নিয়ে ঘুমাচ্ছেন। সোফায় চাদর মোড়া, ভাঁজ হয়ে যাওয়া বালিশ দেখেই বোঝা যাচ্ছে কেউ ওখানে ঘুমিয়েছিলেন। ঘুমানোর পাশাপাশি কর্মীদের ব্যক্তিগত পরিচ্ছন্নতার কথা মাথায় রেখে জামা-কাপড় কাচার জন্য ওয়াশিং মেশিনও রাখা হয়েছে। টুইটারের অফিসে এখন রয়েছে আলমারিও। কর্মীরা যারা বাড়ি যেতে পারছেন না, তা সপ্তাহখানেকের জামা এনে আলমারিতে রেখে দিচ্ছেন। এককথায় বলতে গেলে টুইটারের অফিসই কর্মীদের বাড়ি হয়ে গিয়েছে। উল্লেখ্য, টুইটারে ছাঁটাই শুরু হওয়ার পরই দেখা গিয়েছিল, বাড়ি না গিয়ে অফিসেই স্লিপিং ব্যাগে ঘুমোচ্ছেন কর্মীরা।
RELATED ARTICLES
- Advertisment -
Google search engine

Most Popular

Recent Comments